• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ৭ চৈত্র ১৪২৫

জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকাতে রাস্তায় বিশ্বের লাখো শিশু-কিশোর

জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকাতে রাস্তায় বিশ্বের লাখো শিশু-কিশোর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক১৬ মার্চ ২০১৯, ০৩:৫২পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকাতে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী বিক্ষোভ দিবস উপলক্ষে শুক্রবার বিশ্বব্যাপী লাখো শিশু-কিশোর রাস্তায় নেমে এসেছে।

ব্যাংকক থেকে বার্লিন ও লাগোস থেকে লন্ডন পর্যন্ত বিভিন্ন দেশের রাজধানীর শ্রেণীকক্ষগুলো ফাঁকা রেখে শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে এই বিক্ষোভ করে। বিশ্বের ১শ’রও বেশি দেশের স্কুল শিক্ষার্থীরা তাদের ধর্মঘটে সাড়া দেয়। ইউরোপ, উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা ও এশিয়ার রাস্তাগুলো শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে।

এ সময় তারা ‘যদি আপনারা বড়দের মতো দায়িত্বশীল আচরণ না করেন, তবে আমরাই করব।’ ও ‘আপনারা আমাদের ভবিষ্যত ধ্বংস করছেন।’ লেখা প্ল্যাকার্ড বহন করে ও শ্লোগান দেয়।

তিন দশক ধরে সতর্কতা সত্ত্বেও কার্বন ডাইঅক্সাইড নিঃসরণের মাত্রা ২০১৭ সাল ও গতবছর অতীতের সকল রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে।

স্টকহোমে নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনয়নপ্রাপ্ত ১৬ বছর বয়সী সুইডিশ কিশোরী গ্রেটা থুনবার্গ সুইডিশ সরকারি টেলিভিশন এসভিটিকে বলেন, ‘আমরা গভীর সংকটের মধ্যে আছি। ভয়াবহ এই সংকটকে কয়েক দশক ধরে অবহেলার চোখে দেখা হচ্ছে। এখনই যদি এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেয়া না হয়, তবে অনেক দেরি হয়ে যেতে পারে।’

কানাডার মন্ট্রিলে সবচেয়ে বেশি লোক জড়ো হয়। সেখানে আনুমানিক ১ লাখ ৫০ হাজার লোক মিছিলে যোগ দেয় বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন, শিকাগো, পোর্টল্যান্ড, অরেগোন ও মিনেসোটার সেন্ট পলে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

লাতিন আমেরিকার দেশ আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েন্স আইয়ার্সে মিছিলকারীরা ‘জলবায়ু পরিবর্তনের খবর মিথ্যে নয়’ সম্বলিত প্ল্যাকার্ড বহন করে। চিলির রাজধানী সান্টিয়াগো ও কলম্বিয়ার মেডেলিনে শিশু-কিশোররা রাস্তায় নামে।

বিশ্বের অন্যতম ঘন জনবসতিপূর্ণ নগরী দিল্লীতে ২শ’ শিক্ষার্থী বিক্ষোভে অংশ নেয়। তারা রঙিন ফিতে নাড়িয়ে প্রতিবাদ করে।

১৬ বছর বয়সী ছাত্রী সৃজনী দত্ত বলেন, ‘আমরা কি হাত গুটিয়ে বসে থাকব নাকি আমাদের বিশ্বকে রক্ষায় কিছু করব তা আমাদেরকেই ঠিক করতে হবে।’

সিডনিতে ১৮ বছর বয়সী চার্লিস রিকউড জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে অস্ট্রেলিয়ার গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ ধ্বংস হয়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করেছেন।

তিনি আরো বলেন, ‘যদি পরিবেশের বর্তমান অবস্থা চলতে থাকে তবে খুব শিগগিরই আমরা আমাদের সাগরের পানিকে এক থেকে দুই ডিগ্রী বাড়তে দেখব। তখন স্বাভাবিকভাবেই পরিবেশ আর টেকসই থাকবে না, মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠবে আর এভাবেই আমরা পুরো গ্রেট ব্যারিয়ার রিফকে হারাতে পারি।’

লন্ডনের মধ্যাঞ্চলের সড়কগুলোতে কয়েক হাজার শিশু-কিশোর বিক্ষোভ করে। এ সময় তারা বিভিন্ন ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড হাতে মিছিলে অংশ নেয়।

জনাকীর্ণ পার্লামেন্ট স্কোয়ারে তারা ‘এখনই পরিবর্তনের সময়’ বলে স্লোগান দেয়। এরপর তারা ডাইনিং স্ট্রিট ও বার্মিংহাম প্রাসাদের পাশ দিয়ে মিছিল করে।

লন্ডনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় বাসিন্দা ১৫ বছর বয়সী জো ক্র্যাবট্রি বলে, ‘তারা আমাকে আমার গ্রহ রক্ষার প্রচেষ্টা থেকে ফেরাতে পারবে না।’

র‌্যালিতে যোগ দেয়ার জন্য ছেলেটি দুটি পরীক্ষা দিতে পারেনি। আয়োজনকারী সংগঠন ইয়ুথ ফর ক্লাইমেট জানায়, আনুমানিক ১০ লাখের বেশি শিশু-কিশোর এই মিছিলে যোগ দেয়।

ফ্রাইডে ফর ফিউচার মুভমেন্ট জানায়, শুধু জার্মানীতেই ৩ লাখের বেশি শিশু-কিশোর মিছিল করে।

কেনিয়ায় শিশু-কিশোররা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করে। এ সময় তারা আগামী দশকে প্লাস্টিকের ব্যবহার ‘উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাস করার’ ব্যাপারে একমত পোষণ করে।

 

 

টাইমস/এসআই

নারী পথচারীকে ধাক্কা দিয়ে পালানোর সময় আবরারকে চাপা দেয় বাসচালক

নারী পথচারীকে ধাক্কা দিয়ে পালানোর সময় আবরারকে চাপা দেয় বাসচালক

বিইউপি ছাত্র আবরার আহমেদ চৌধুরীকে চাপা দেয়ার আগে সুপ্রভাত পরিবহনের বাসের চালক বাঁশতলায় এক নারী পথচারীকে ধাক্কা দিয়েছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, বাঁশতলায় ওই নারীকে ধাক্কা দিয়ে পালানোর সময় যমুনা ফিউচার পার্কের সামনের সড়কে এসে আবার আবরারকে চাপা দেয় বাসটি।

সাত দিনের আলটিমেটাম দিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন স্থগিত

সাত দিনের আলটিমেটাম দিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন স্থগিত

রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে প্রগতি সরণীতে বাসচাপায় বিইউপির শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী নিহতের ঘটনায় সাত দিনের আলটিমেটাম দিয়ে আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। বুধবার সন্ধ্যা ছয়টার পর রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার সামনের সড়কে এসে তারা এই ঘোষণা দেন।

৩৭তম বিসিএস: নিয়োগ পেলেন এক হাজার ২২১ ক্যাডার

৩৭তম বিসিএস: নিয়োগ পেলেন এক হাজার ২২১ ক্যাডার

অবশেষে ৩৭তম বিসিএসে প্রতীক্ষার অবসান হলো। ১ হাজার ২২১ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। বুধবার বিকেলে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এর মাধ্যমে এই বিসিএসের অপেক্ষার অবসান হলো। এখন এই ক্যাডারদের বিভিন্ন স্থানে পদায়ন শুরু হবে।

জাতীয়

সিরাজগঞ্জে হানিফ পরিবহনের দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত চার

সিরাজগঞ্জে হানিফ পরিবহনের দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত চার

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় হানিফ পরিবহনের দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১৫ জন। বুধবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম পাড়ে উপজেলার ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের সয়দাবাদ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ওসি সৈয়দ সহিদ আলম জানান, বিকেলে হানিফ পরিবহনের একটি বাস ঢাকা থেকে উত্তরবঙ্গের দিকে যাচ্ছিল।

জাতীয়

সাত দিনের রিমান্ডে সুপ্রভাত বাসের চালক

সাত দিনের রিমান্ডে সুপ্রভাত বাসের চালক

যমুনা ফিউচার পার্কের সামনের প্রগতি সরণিতে সড়ক দুর্ঘটনায় শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী নিহত হওয়ার ঘটনায় করা মামলায় গ্রেপ্তার সুপ্রভাত পরিবহনের বাসের চালক সিরাজুল ইসলামের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত তার রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

জাতীয়

আবরারের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা প্রদানের নির্দেশ

আবরারের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা প্রদানের নির্দেশ

বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীকে সাত দিনের মধ্যে ১০ লাখ টাকা দিতে সুপ্রভাত পরিবহন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বুধবার এক রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ নির্দেশ দেন।

বিনোদন

সাড়ে চার লাখ টাকা হোটেল বিল না দিয়ে পালালেন অভিনেত্রী পূজা

সাড়ে চার লাখ টাকা হোটেল বিল না দিয়ে পালালেন অভিনেত্রী পূজা

ভারতীয় অভিনেত্রী পূজা গান্ধীকে নিয়ে যেন বিতর্কের শেষ নেই। এবার তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, বেঙ্গালুরুর বিলাসবহুল হোটেলে বিল না দিয়েই চলে পালিয়ে গেছেন তিনি। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, পূজা বেশ কয়েকদিন বেঙ্গালুরুর হোটেলে ছিলেন। হোটেলে বিল বাড়তেই তিনি সবার চোখ এড়িয়ে হোটেল ছেড়ে চলে যান। হোটেল ম্যানেজমেন্ট এ কথা জানতে পেরে স্থানীয় থানায় এই অভিনেত্রীর নামে অভিযোগ দায়ের করেন।

জাতীয়

পার্বত্য এলাকায় উল্লেখযোগ্য যত হত্যাকাণ্ড

পার্বত্য এলাকায় উল্লেখযোগ্য যত হত্যাকাণ্ড

পাহাড়ে সন্ত্রাসী গ্রুপের অপতৎপরতায় জীবনহানি সাধারণ ঘটনায় পরিণত হয়েছে। পার্বত্য শান্তিচুক্তির পর পাহাড়ে শান্তি ফিরে আসবে- এমনটিই আশা করা হয়েছিল। কিন্তু পাহাড়ি সংগঠনগুলোর অন্তঃকোন্দল সেই সম্ভাবনাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে তুলেছে। পাহাড়ে সংঘাত দানা বেঁধে ওঠে ১৯৭২ সালে। এ সময় পাহাড়িদের রাজনৈতিক অধিকার প্রতিষ্ঠার নামে গড়ে ওঠে মানবেন্দ্র লারমার নেতৃত্বে জনসংহতি সমিতি নামের সংগঠন। ’৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুর হত্যার পর জিয়াউর রহমান সরকারের কিছু কর্মকাণ্ড পাহাড়ে অশান্তির দাবানল সৃষ্টি করে। ’৯৭ সালে সম্পাদিত শান্তিচুক্তির আওতায় পার্বত্য তিন জেলায় শান্তি ফিরে আসার সম্ভাবনা দেখা দেয়। কিন্তু জনসংহতি সমিতির একাংশ শান্তিচুক্তির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে ইউপিডিএফ নামের সংগঠন গড়ে তোলায় পাহাড়ে প্রত্যাশিত শান্তি ফিরে আসেনি।

আন্তর্জাতিক

লুফে নিয়ে আগুন থেকে তিন শিশুকে বাঁচাল পুলিশ

লুফে নিয়ে আগুন থেকে তিন শিশুকে বাঁচাল পুলিশ

একটি বহুতল ভবনে আগুন লাগলে তৃতীয় তলার একটি ফ্লাটে আটকা পরে তিন শিশু। ফায়ার সাভির্সের সহায়তা পৌছাঁতে পৌছাঁতে হয়তো মারাই যেত তারা। কোনো উপায় না দেখে পুলিশ কর্মকর্তাদের কথা মতো একে এক নিচে ঝাপ দেয় তারা। আর মাটিতে দাঁড়িয়ে তাদের লুফে নেন সেই পুলিশ কর্মকর্তারা। খবর এনডিটিভির।     মঙ্গলবার এই অসাধারণ ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের আইওয়া অঙ্গরাজ্যের রাজধানী দেস মইনে।